ইরানের সাথে যুদ্ধ বাধতেই পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যা করা হয়েছে: রাশিয়া

ইরানের বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদে’র হত্যাকাণ্ডকে সন্ত্রাসী হামলা বলে আখ্যায়িত করেছেন রুশ সংসদ- দুমা’র পররাষ্ট্র বিষয়ক স্থায়ী কমিটির চেয়ার‍্যমান লিওনিদ স্লাতেস্কি। তিনি বলেছেন, ইরানকে নতুন করে উসকানি দিতেই এ হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছে।

স্লাতেস্কি রোববার তার অফিসিয়াল টুইটার পেজে লিখেছেন, “ইরানি পদার্থবিজ্ঞানী ফাখরিজাদে’র হত্যাকাণ্ড একটি সন্ত্রাসী হামলা যা ইরানকে উসকানি দিতে চালানো হয়েছে। এ অবস্থায় মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা যাতে আর বাড়তে না পারে সে পদক্ষেপ নেয়া জরুরি।”

রাশিয়ার এই আইনপ্রণেতা আরো বলেন, “কে বা কারা এই হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে তা বিবেচনা না করেই মস্কো এই পাশবিক হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানাচ্ছে এবং ফাখরিজাদে’র পরিবারসহ ইরানি জনগণকে সমবেদনা জানাচ্ছে।

ইরানের বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের গবেষণা ও উদ্ভাবন বিষয়ক সংস্থার চেয়ারম্যান মোহসেন ফাখরিজাদে শুক্রবার সন্ধ্যায় এক সন্ত্রাসী হামলায় শহীদ হন। তেহরানের অদূরে দামাভান্দ কাউন্টির আবসার্দ শহরের একটি সড়কে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফাখরিজাদে’কে বহনকারী গাড়িতে হামলা চালায়।

একজন পদস্থ মার্কিন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দেশটির দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, এই হত্যাকাণ্ডে ইহুদিবাদী ইসরাইলের হাত থাকার ব্যাপারে কোনো সংশয় নেই।

কয়েক বছর আগে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরির প্রচেষ্টার দায়ে অভিযুক্ত করতে গিয়ে দাবি করেছিলেন, মোহসেন ফাখরিজাদে তার ভাষায় ইরানের ‘পরমাণু অস্ত্র তৈরির জনক।’ তিনি বলেন, “নামটি মনে রাখবেন। মোহসেন ফাখরিজাদে।”

জার্মানি, তুরস্ক, কাতার, সিরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, ভেনিজুয়েলাসহ বহু দেশ এবং জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন ইরানের এই পরমাণু বিজ্ঞানীর হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়েছে।