বাংলা সাহিত্যপাঠের নতুন সিলেবাস প্রকাশ একাদশ-দ্বাদশের

আজ রোববার থেকে অনলাইনে শুরু হয়েছে একাদশ শ্রেণির ক্লাস। একাদশ-দ্বাদশ ও আলিম শ্রেণির বাংলা প্রথম পত্র ‘সাহিত্যপাঠ’ পাঠ্যপুস্তকের নতুন সিলেবাস প্রকাশ করেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সচিব অধ্যাপক মো. নিজামুল করিম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।  সাহিত্যপাঠে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য প্রণীত নতুন সিলেবাসে ১২টি গদ্য ও ১২টি পদ্য রয়েছে।

গদ্যের মধ্যে রয়েছে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘বাঙ্গালার নব্য লেখকদিগের প্রতি নিবেদন’, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘অপরিচিতা’, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘বিলাসী’, রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের ‘গৃহ’, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘আহ্বান’, কাজী নজরুল ইসলামের ‘আমার পথ’, আবুল ফজলের ‘মানব-কল্যাণ’, মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘মাসি-পিসি’, শেখ মুজিবুর রহমানের ‘বায়ান্নর দিনগুলো’, আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ‘রেইনকোট’, মুহম্মদ জাফর ইকবালের ‘মহাজাগতিক কিউরেটর’ ও গি দ্য মোপাসাঁর ‘নেকলেস’।

পদ্যের মধ্যে রয়েছে মাইকেল মধুসূদন দত্তের ‘বিভীষণের প্রতি মেঘনাদ’, কাজী নজরুল ইসলামের ‘বিদ্রোহী’, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘সোনার তরী’, জসীমউদ্‌দীনের ‘প্রতিদান’, জীবনানন্দ দাশের ‘সুচেতনা’, সুফিয়া কামালের ‘তাহারেই পড়ে মনে’, ফররুখ আহমদের ‘পদ্মা’, সুকান্ত ভট্টাচার্যের ‘আঠারো বছর বয়স’, শামসুর রাহমানের ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯’, আবু জাফর ওবায়দুল্লাহর ‘আমি কিংবদন্তীর কথা বলছি’, সৈয়দ শামসুল হকে ‘নূরলদীনের কথা মনে পড়ে যায়’ ও আবু হেনা মোস্তফা কামালের ‘ছবি’।