Wednesday, February 28, 2024
Homeদেশ-জুড়েরাণীশংকৈলে রঙিন জাতের বাঁধাকপি'র চাষাবাদ 

রাণীশংকৈলে রঙিন জাতের বাঁধাকপি’র চাষাবাদ 

মাহাবুব আলম,রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি।।
উত্তর অঞ্চলে টেকসই উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে প্রথম বারের মতো রঙিন জাতের বাঁধাকপি রুবি -কিং চাষ শুরু হয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায়। দেখতে যেমন রঙিন সুন্দর ও স্বাদে হালকা মিষ্টি। সালাত হিসেবেও খাওয়ার   উপযোগী।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের গবেষণায় দেখা গেছে এই বাঁধা কপি ভিটামিন এ,সি,ও কে, সমৃদ্ধ।  রঙিন শাকসবজিতে সবুজগুলোর তুলনায় ভিটামিন বেশি থাকে, এই কপিতে চর্বি নেই বললেই চলে, পাশাপাশি এই কপি আলসার ও ক্যানসার প্রতিরোধে খুবই কার্যকরী। ফলে এটি খাওয়া মানবদেহের জন্য খুবই উপকারী।
স্বাভাবিক পরিবেশে কয়েক দিন সংরক্ষণ করা যায়। বাজারে এই রঙিন বাঁধাকপির চাহিদাও বেশি। যা সাধারণ কপির চেয়ে অনেক বেশি লাভ। দাম ও ফলন ভালো হওয়ায় স্থানীয় কৃষকেরা এ জাতের কপি চাষে ব্যাপক আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। দ্বিগুণ লাভের আশায় প্রত্যন্ত গ্রামে এই রঙিন বাঁধাকপি চাষ শুরু করেছেন রাণীশংকৈল উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের কৃষক আইনুল হক, তার ২০ শতাংশ জমিতে এবার ভিন্ন কিছু চাষ করার ভাবনা থেকে লাল বাঁধাকপি রুবি কিং চাষ করেছেন তিনি।
রঙিন লাল বাঁধাকপি দেখতে সুন্দর। ভিতরে টুকটুকে লাল ও স্বাদে কিছুটা মিষ্টি হোওয়ায় এর চাহিদাও বেশি। ব্যাপক লাভবানের আশা করছেন তিনি। লাল বাঁধাকপি দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসছেন লোকজন। এই বাঁধাকপিগুলো ৮০-৯০ দিনের মধ্যে পরিপক্ত হয়ে বিক্রির উপযোগী হয়ে ওঠে ।
উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা একরামুল করিম বলেন, এউপজেলায় প্রথমবারের মতো রঙিন বাঁধাকপির চাষ হয়েছে। অন্য কৃষকরাও এ জাতের কপি চাষে
আগ্রহ দেখাচ্ছেন।
রাণীশংকৈল উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শহিদুল ইসলাম বলেন, দিনাজপুর অঞ্চলে টেকসই উন্নয়ন প্রকল্পের অধিনে প্রথম বারের মতো রঙিন জাতের বাঁধাকপি রুবি -কিং চাষ হচ্ছে। এবছর আমাদের উপজেলায় মোট ১ একর জমিতে এই রঙিন বাঁধাকপি চাষ হয়েছে, এই কপি ভিটা’মিন এ, সি, ও কে, সমৃদ্ধ, রঙিন শাকসবজিতে সবুজগুলোর তুলনায় ভিটামিন বেশি
থাকে,পাশাপাশি এই কপি আলসার ও ক্যানসার
প্রতিরোধ করে আগামীতে এ উপজেলায় এর চাষ বাড়বে বলে আশা করছেন তিনি।
RELATED ARTICLES
Continue to the category

Most Popular