Tuesday, February 27, 2024
Homeদেশ-জুড়েনাগেশ্বরীতে কোটি টাকা নিয়ে প্রতারক জাকির ও রাসেল উধাও

নাগেশ্বরীতে কোটি টাকা নিয়ে প্রতারক জাকির ও রাসেল উধাও

ফিরোজ কবির, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি:নাগেশ্বরীতে মা কসমেটিক্স ও অভিযাত্রী সুজ প্রতিষ্ঠানের প্রোপাইটর কুড়িগ্রাম সওদাগড় পাড়ার বাসিন্দা জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া প্রায় ২০জন ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষদের কাছে কোটি টাকা নিয়ে উধাও।
কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলা—পৌরসভার নাগেশ্বরী ডিএম একাডেমি স্কুল গেট সংলগ্ন মা কসমেটিক্স প্রোঃ জাকির হোসেন এবং নাগেশ্বরী কাজী মার্কেটের অভিযাত্রী সুজ প্রোঃ রাসেল মিয়া প্রায় ৭বছর থেকে ব্যবসা করে আসছেন এবং ব্যবসায় বিনিয়োগের কথা বলে ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ প্রায় ২০জনের কাছ থেকে এক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে কয়েকদিন পুর্বে প্রতিষ্ঠান তালা দিয়ে উধাও হয়ে গেছেন।
ভুক্তভোগী ফারুক হোসেন, নয়ন মিয়া, এলিম, আব্দুল খালেক, আব্দুল ওহাব ও কসাই জানান, কুড়িগ্রাম সওদাগড় পাড়া এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের পুত্র জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া (দুই ভাই) দীর্ঘ ৭বছর ধরে নাগেশ্বরী পৌরসভার ডিএম একাডেমি স্কুল গেট সংলগ্ন জাকির হোসেনের “মা কসমেটিক্স” এবং কাজী মার্কেটে রাসেল মিয়ার “অভিযাত্রী সুজ” প্রতিষ্ঠান রুম ভারা নিয়ে ব্যবসা করে আসছেন এবং ব্যবসায় বিনিয়োগের কথা বলে সুসম্পর্কের ফায়দা নিয়ে ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষদের কাছ থেকে বেশি টাকা লাভ দেয়ার লোভ দেখিয়ে টাকা নেন এবং ব্যবসায় বিনিয়োগ করে টাকা আয় করে কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেওয়ার আশ্বাসও দেন প্রতারক দুই ভাই।
অভিযোগদের মধ্যে ফারুক হোসেনের ১লাখ ৫০হাজার, নয়ন মিয়ার ২লাখ ২০হাজার, এলিমের ৫০হাজার, আব্দুল খালেকের ৩লাখ, আব্দুল ওহাবের ২লাখ ও কসাই আলীর ২লাখ ২০হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন প্রতারক জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া। অভিযোগকারীরা ছাড়াও আরও অনেকে রয়েছে যাদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা নিয়ে তাদের দোকানের মালামাল শূণ্য করে রাতারাতি দোকানে তালা দিয়ে উধাও হয়েছেন প্রতারক দুই ভাই। ভুক্তভোগীরা ধারণা করছেন জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া প্রায় এক কোটি টাকা নিয়ে উধাও হয়ে গেছেন।
ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী ফারুক হোসেন, নয়ন মিয়া, এলিম, আব্দুল খালেক, আব্দুল ওহাব ও কসাই জানান, কুড়িগ্রাম সওদাগড় পাড়া এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের পুত্র জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া (দুই ভাই) কে বিশ্বাস করে আমরা টাকা দিয়েছিলাম। তারা আমাদের টাকা নিয়ে উধাও হয়ে গেছেন। আমরা সকলেই এখন নিঃস্ব। আমাদের রাস্তার ফকির বানিয়ে চলে গেছেন প্রতারক জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া। আমরা প্রশাসনের কাছে দাবি জানাচ্ছি যাতে তাকে ধরে আমাদের টাকা ফিরিয়ে দেয়।
এদিকে খেঁাজ নিয়ে জানা যায়, কুড়িগ্রাম সওদাগড় পাড়া এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের পুত্র জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া নিজ এলাকায় বিভিন্ন মানুষদের সাথে প্রতারনা করে ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে নাগেশ্বরীতে এসে ৭বছর ব্যবসা করে হঠাৎ করেই কোটি টাকা নিয়ে উধাও।
নাগেশ্বরী বণিক সমিতির সভাপতি ফজলুল হক (ফজলু) ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, জাকির হোসেন ও রাসেল মিয়া নাগেশ্বরীতে ৭বছর ধরে ব্যবসা করে আসছেন। হঠাৎ করে ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষদের কাছে টাকা নেন এবং ব্যবসায় বিনিয়োগ করে টাকা আয় করে কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেওয়ার আশ্বাসও দেন প্রতারক দুই ভাই রাতারাতি উধাও হয়েছেন।
নাগেশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ রূপ কুমার সরকার বলেন, অভিযোগ পাওনা যায় নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ বিষয়ে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) মোঃ রুহুল আমীন বলেন, কুড়িগ্রামে আমরা প্রায় প্রত্যন্ত অঞ্চলে নানাভাবে মানুষকে সচেতন করছি। কুড়িগ্রাম জেলায় অপরাধ নির্মূলে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

RELATED ARTICLES
Continue to the category

Most Popular